Home » সরকারি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি » ডিফেন্স জব সার্কুলার » বাংলাদেশ নৌবাহিনী নিয়োগ সার্কুলার ২০২৩

বাংলাদেশ নৌবাহিনী নিয়োগ সার্কুলার ২০২৩

নাবিক ও এমওডিসি পদে জনবল নিয়োগ দেওয়ার জন্য বাংলাদেশ নৌবাহিনী একটি সার্কুলার গত ০১ মার্চ ২০২৩ তারিখে প্রকাশ করেছে। এই পোস্টের মাধ্যমে নতুন এ বিজ্ঞপ্তি PDF আকারে ডাউনলোড করতে পারবেন।

যোগ্যতা থাকলে মহিলা ও পুরুষ সকল প্রার্থী আবেদন করতে পারবেন। আবেদনের শেষ সময় 25 মার্চ 2023 তারিখ। কিন্তু কিভাবে অনলাইনে নৌবাহিনীর আবেদন ফরম পূরণ করবেন?

নৌবাহিনীতে যোগদান করতে আগ্রহী তরুণগণ বিস্তারিত জেনে নিন এই পোস্ট হতে। সম্প্রতি প্রকাশিত নেভি সার্কুলার হতে সকল তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে।

 

চাকরির সারসংক্ষেপ

  • বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ: ০১-০৩-২০২৩
  • ক্যাটাগরি: নাবিক ও এমওডিসি (MODC)
  • খালি পদ: অনির্দিষ্ট
  • আবেদন ফি: ২০০ টাকা
  • আবেদন শুরু: ০১-০৩-২০২৩
  • আবেদনের শেষ তারিখ: ২৫-০৩-২০২৩
  • আবেদনের মাধ্যম: Online

 

আরও পড়ুন: চলমান সকল এনজিও নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

 

২০২৩ সালের বাংলাদেশ নৌবাহিনী নিয়োগ সার্কুলার ডাউনলোড করুন

নৌবাহিনীর নিয়োগ সার্কুলার PDF আকারে ডাউনলোড করতে নিচের বাটনে ক্লিক করুন-

 

০১ মার্চ ২০২৩ তারিখে প্রকাশিত বাংলাদেশ নৌবাহিনীর নিয়োগ সার্কুলার

 

 

নৌবাহিনীর অন্যান্য সার্কুলার:

 

আবেদন যোগ্যতা

নিচে নাবিক হওয়ার যোগ্যতা তুলে ধরা হলো। অর্থাৎ নৌবাহিনীর নাবিক পদে আবেদন করতে হলে আপনাকে অবশ্যই বর্ণিত যোগ্যতাসম্পন্ন হতে হবে।

 

শিক্ষাগত যোগ্যতা:

শাখা যোগ্যতা
ডিই/ইউসি (কমিউনিকেশন, সিম্যান ও টেকনিক্যাল) এসএসসি (সায়েন্স), জিপিএ ৩.৫০
মেডিকেল এসএসসি (সায়েন্স), জিপিএ ৩.৫০
রাইটার, পেট্রোলম্যন, ষ্টোর ও এমওডিসি (নৌ) এসএসসি, জিপিএ ৩.০০
কুক ও স্টুয়ার্ড এসএসসি, জিপিএ ২.৫০
টোপাস জেএসসি পাস

 

শারীরিক যোগ্যতা:

শাখা উচ্চতা বুকের মাপ ওজন
সিম্যান ৫ ফুট ৬ ইঞ্চি ৩০-৩২ ইঞ্চি বয়স ও উচ্চতা অনুযায়ী
পেট্রোলম্যান ৫ ফুট ৮ ইঞ্চি
অন্যান্য শাখা ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি
এমওডিসি (নৌ) ৫ ফুট ৬ ইঞ্চি

 

অন্যান্য যোগ্যতা:

চলুন বাংলাদেশ নেভি সার্কুলারে দেওয়া তথ্যানুসারে অন্যান্য কিছু যোগ্যতা দেখে নেই। এসব যোগ্যতাও আবেদনকারীর অবশ্যই থাকতে হবে।

  • চোখের দৃষ্টি: ৬/৬
  • সাঁতার: অবশ্যই জানতে হবে।
  • জাতীয়তা: বাংলাদেশী পুরুষ নাগরিক।
  • বৈবাহিক অবস্থা: অবিবাহিত হতে হবে।
  • বয়স: ০১ জুলাই ২০২৩ তারিখে বয়স  ১৭-২০ বছর হতে হবে। তবে এমওডিসি (নৌ) পদের জন্য বয়স ১৭-২২ বছরের মধ্যে হতে হবে।

 

আরও পড়ুন: বিআইডব্লিউটিএ এর নতুন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

 

অনলাইন আবেদন ফরম পূরণ করার পদ্ধতি

বাংলাদেশ নৌবাহিনীতে চাকরির জন্য আবেদন ফরম কিভাবে অনলাইনে পূরণ করবেন তা নিচে ধাপে ধাপে বর্ণনা করা হলো।

  1. প্রথমে joinnavy.navy.mil.bd ওয়েবসাইট ভিজিট করুন।
  2. এখন “Sailor” এর নিচের “Apply Now” বাটনে প্রেস করুন।
  3. এবার স্ক্রিনে প্রদর্শিত নির্দেশনা অনুসরণ করে আবেদনের সম্পন্ন করুন।

উল্লেখ্য, আবেদন করার সময় প্রার্থীকে আবেদন ফি বাবদ ২০০ টাকা মোবাইল ব্যাংকিং (নগদ, বিকাশ ইত্যাদি) এর মাধ্যমে জমা দিতে হবে। আবেদন ফি জমা না দেওয়া পর্যন্ত আবেদন অসম্পূর্ণ রয়ে যাবে।

 

ভর্তি পদ্ধতি

মোট ০৪ টি ধাপ সফলভাবে অতিক্রম করতে পারলে আপনি নাবিক হিসেবে জয়েন করতে পারবেন। ধাপগুলো হলো-

  1. প্রাথমিক নির্বাচন।
  2. লিখিত পরীক্ষা।
  3. চূড়ান্ত স্বাস্থ্য পরীক্ষা।
  4. এবং মৌখিক পরীক্ষা।

প্রাথমিক নির্বাচনী পরিক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য আপনাকে অবশ্যই নিম্নে উল্লিখিত কাগজপত্রাদি নিয়ে নিজ জেলার নির্ধারিত কেন্দ্রে নির্ধারিত সময় উপস্থিত থাকতে হবে-

  • এসএসসি (SSC) পাশের মূল সনদনপত্র।
  • মূল মার্কশিট।
  • শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হতে প্রাপ্ত মূল প্রশংসাপত্র।
  • মূল রেজিষ্ট্রেশন কার্ড এবং এডমিট কার্ড।
  • অষ্টম শ্রেনি পাস প্রার্থীদের ক্ষেত্রে শুধুমাত্র স্কুল হতে প্রাপ্ত মার্কশিট এবং সনদপত্র হলেই হবে।
  • জাতীয়তা ও চরিত্রগত সনদপত্র।
  • জাতীয় পরিচয় পত্র/জন্ম নিবন্ধন।
  • অভিবাবকের সম্মতিপত্র।

যেসব বিষয় হতে লিখিত পরীক্ষার প্রশ্ন করা হবে তার লিস্ট নিচে দেওয়া হলো-

  • বাংলা
  • গণিত
  • বিজ্ঞান
  • সাধারণ জ্ঞান

 

বেতন ও ভাতা

সরকার কর্তৃক নির্ধারিত সকল সুবিধাদিসহ বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর বেতনক্রম অনুযায়ী বেতন ও ভাতা পাবেন। তবে কোন প্রার্থীর পদোন্নতি হলে আরও উচ্চতর স্কেলে বেতন পাবেন। এসব ছাড়াও অন্যান্য যে সুবিধা পাবেন তা নিচে উল্লেখ করা হলো-

  • বিনামূল্যে পোষাক, থাকা, খাওয়া এবং চিকিৎসার সুবিধা।
  • অল্প টাকায় পরিবারের জন্য রেশন কেনার সুবিধা।
  • অবসর গ্রহণ করলে এককালীন অবসর ভাতা।
  • যোগ্যতা থাকলে পদন্নোতির সুযোগ।
  • আপনি চাকুরীরত অবস্থায় অসুস্থ হলে কিংবা মারা গেলে আপনার পরিবার বিভিন্ন ধরণের আর্থিক সুবিধা ভোগ করতে পারবে।
  • এছাড়াও বিদেশে বাংলাদেশ দূতাবাসে নিয়োগ প্রাপ্তির সুযোগ রয়েছে।

 

বাংলাদেশ নৌবাহিনী সম্পর্কিত কিছু তথ্য

বাংলাদেশ নৌবাহিনী বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর নৌযুদ্ধ শাখা। এর দায়িত্বে রয়েছে প্রায় ১,১৮,৮১৩ বর্গকিলোমিটার সমুদ্রসীমা। এই সীমার মধ্যে অবস্থিত সকল বন্দর এবং সামরিক স্থাপনার নিরাপত্তা বাংলাদেশ নৌবাহিনী দিয়ে থাকে।

এ বাহিনীর প্রাথমিক দায়িত্ব হচ্ছে দেশে এবং বিদেশে বাংলাদেশের সামরিক এবং অর্থনৈতিক স্বার্থ রক্ষা করা। এছাড়াও বাংলাদেশ নৌবাহিনী বাংলাদেশে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা এবং বিদেশে মানবিক সহায়তা মিশনেও কাজ করে যাচ্ছে।

নৌবাহিনীতে সর্বপ্রথম ১৬ জন নারী ক্যাডেট হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন ২০০০ সালের জানুয়ারি মাসে। বাংলাদেশ নৌবাহিনীতে নারী অফিসার নিয়োগ ছিলো এই প্রথম। তবে ২০১৬ সালে ৪৪ জন নারী নাবিক প্রথমবারের মত নৌবাহিনীতে যুক্ত হয়।

কিন্তু নারীদের অফিসার হিসেবে এক্সিকিউটিভ শাখায় যোগদানের সুযোগ দেওয়া হয় না। নাবিক হিসেবে নারীদের শুধু রাইটার, মেডিকেল অ্যাসিস্ট্যান্ট, স্টুয়ার্ড এবং স্টোর অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসেবে নেওয়া হয়।

 

আরও পড়ুন: বিআরটিসি এর নতুন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

 

বাংলাদেশ নৌবাহিনী অফিসার ক্যাডেট নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ডাউনলোড করুন

অফিসার ক্যাডেট পদে চাকরি করতে চাইলে আপনি এই সার্কুলারটি দেখতে পারেন-

 

১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ তারিখে প্রকাশিত বাংলাদেশ নৌবাহিনী অফিসার ক্যাডেট নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

 

 

বাংলাদেশ নৌবাহিনীর বেসামরিক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ডাউনলোড করুন

নৌবাহিনীর অসামরিক পদে চাকরি করতে চাইলে আপনি এই সার্কুলারটি দেখতে পারেন-

 

০৭ মার্চ ২০২৩ তারিখে প্রকাশিত বাংলাদেশ নৌবাহিনীর বেসামরিক পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

০৭ মার্চ ২০২৩ তারিখে প্রকাশিত বাংলাদেশ নৌবাহিনীর বেসামরিক পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

০৭ মার্চ ২০২৩ তারিখে প্রকাশিত বাংলাদেশ নৌবাহিনীর বেসামরিক পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

০৭ মার্চ ২০২৩ তারিখে প্রকাশিত বাংলাদেশ নৌবাহিনীর বেসামরিক পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

০৭ মার্চ ২০২৩ তারিখে প্রকাশিত বাংলাদেশ নৌবাহিনীর বেসামরিক পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

 

 

বাংলাদেশ নৌবাহিনী সম্পর্কিত কিছু তথ্য

বাংলাদেশ নৌবাহিনী বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর নৌ শাখা। এটি আনুষ্ঠানিকভাবে গঠিত হয়েছিল ১৯৭১ সালে, বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময়, এবং তখন থেকে এই অঞ্চলে এটি একটি শক্তিশালী শক্তিতে পরিণত হয়েছে। নৌবাহিনী দেশের সামুদ্রিক স্বার্থ রক্ষা এবং এর সামুদ্রিক আইন ও প্রবিধান প্রয়োগের জন্য সর্বদা দায়ীত্বরত রয়েছে।

বাংলাদেশ নৌবাহিনীতে ফ্রিগেট, করভেট, টহল নৌকা ইত্যাদি সহ বিভিন্ন ধরনের জাহাজ রয়েছে। দুটি চীনা-নির্মিত সাবমেরিন এবং বেশ কয়েকটি নতুন ফ্রিগেট সহ সম্প্রতি পাওয়া বিভিন্ন ধরণের যুদ্ধ জাহাজ নিয়ে এর নৌবহর ক্রমাগত বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং আধুনিকীকরণ করে চলেছে।

দেশের সামুদ্রিক স্বার্থ রক্ষায় বাংলাদেশ নৌবাহিনী এর প্রাথমিক ভূমিকার পাশাপাশি, বাংলাদেশ নৌবাহিনী অন্যান্য বিভিন্ন কার্যক্রমের সাথেও জড়িত। এর মধ্যে রয়েছে দুর্যোগ ত্রাণ কার্যক্রম, সামুদ্রিক অনুসন্ধান ও উদ্ধার এবং আন্তর্জাতিক শান্তিরক্ষা মিশনে অংশগ্রহণ। নৌবাহিনী বিভিন্ন মানবিক মিশনে জড়িত রয়েছে, যেমন ২০০৭ সালে ঘূর্ণিঝড় সিডর এবং ২০১৬ সালে ঘূর্ণিঝড় রোয়ানুতে ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তা প্রদান।

আঞ্চলিক নিরাপত্তা রক্ষায়ও বাংলাদেশ নৌবাহিনী গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ভারত এবং চীন সহ অন্যান্য দেশের নৌবাহিনীর সাথে যৌথ মহড়া পরিচালনা করে।

বাংলাদেশ নৌবাহিনী সাম্প্রতিক বছরগুলোতে আধুনিকায়ন ও সম্প্রসারণের ওপর গুরুত্ব দিয়ে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি করেছে। এটি প্রযুক্তি, প্রশিক্ষণ এবং অপারেশনাল প্রস্তুতির পরিপ্রেক্ষিতে এর ক্ষমতা বাড়িয়েছে।

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *